স্কুল কলেজ জনবল কাঠামো 2021

স্কুল ও কলেজ জনবল কাঠামো 2021

স্কুল ও কলেজ জনবল কাঠামো 2021 প্রকাশিত হলো অনেক প্রতীক্ষার পর।  শিক্ষক-কর্মচারীদের  মনে এতদিন যে প্রশ্নগুলো জমানো ছিল  এ জনবল কাঠামো  ও এমপিও নীতিমালায় তার সমাধান মিলেছে।  প্রথমত কিছু  নবসৃষ্ট পদ  বৃদ্ধি হয়েছে। এতদিন ধরে মনে একটা প্রশ্ন তাড়া  করছিল একজন তৃতীয় বা চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী উচ্চতর গ্রেড পেলে তার বেতন কমে যাবে। সহকারী শিক্ষক হতে সহকারী প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগ নিয়ে এমপিওভুক্তির জন্য আবেদন  করলে বেতন কমে যাবে।  কারণ EMIS  সফটওয়্যার নতুন হওয়ার পর সহকারী প্রধান শিক্ষক পদে যারা এমপিওভুক্ত হয়েছেন সত্যি সত্যি কিন্তু তাদের বেতন কমে গেছে। একজন সহকারী শিক্ষক উচ্চতর গ্রেড আবেদন করলে যেখানে তার 6000 টাকা বৃদ্ধি হওয়ার কথা সেখানে তার মাত্র 3500 টাকা। বেশ কিছুদিন ধরে শিক্ষক-কর্মচারীদের মুখেমুখে সমালোচনা ছিল যে আজকে যদি একজন শিক্ষক পে-কোড: ১০ এ এমপিও ভুক্ত হয়। তাহলে ১০ বছর পর তার দশটা  ইনক্রিমেন্ট এমনিতেই জমা হবে।  যদি তার স্কেল হয়  ১৬০০০ টাকা ১০ বছরের ইনক্রিমেন্ট মানে আরো ১০০০০ টাকা ১০ বছর পর  তার মোট স্কেল দাঁড়াবে ২৬০০০০ টাকা। কিন্তু উচ্চতর গ্রেড নিলে তাকে পে-কোড ৯  এর প্রথম ধাপ অর্থাৎ ২২০০০ টাকা স্কেল নিতে হবে।  যদি টাকা  কমে যায় তাহলে কেন আমরা উচ্চতর গ্রেড নিব।  কিন্তু না জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা 2021  এর মাধ্যমে সরকার শিক্ষক-কর্মচারীদের সব সমস্যার সমাধান দিয়েছেন।  আর উচ্চতর গ্রেড নিলে আপনার বেতন কমে যাবে না।  সহকারী প্রধান শিক্ষক পদে এমপিও ভুক্ত হলেও বেতন কমে যাবে না বেতন বৃদ্ধি হবে। একটু ধৈর্য সহকারে পড়তে থাকুন এক এক করে সব বিষয় পরিষ্কার করে দিচ্ছি।  হয়তোবা লিখা একটু বেশি হবে ধৈর্য সহকারে পড়ুন অনেক কিছু জানতে পারবেন।

স্কুল ও কলেজ জনবল কাঠামো 2021 বিষয়াবলী:

ক্রমিক   বিষয়
বেসরকারি শিক্ষা  প্রতিষ্ঠান ( স্কুল ও কলেজ) কর্মরত শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন ভাতাদির সরকারি অংশ সুষ্ঠুভাবে বন্টন উপযুক্ত জনবল কাঠামো প্রণয়ন ও এতদসংক্রান্ত পদ্ধতি যুগোপযোগীকরণ এর লক্ষ্যে জনবল কাঠামো সম্পর্কিত নীতিমালা 2021 প্রণয়ন করা হলো:
শিরোনাম: এ নীতিমালা বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (স্কুল ও কলেজ) জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা 2019 নামে অভিহিত হবে।
নীতিমালার প্রয়োগ: এই নীতিমালা দেশের অভ্যন্তরে অবস্থিত নিম্নোক্ত বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমূহের জন্য প্রযোজ্য হবে:
৩.১। বিদ্যালয় ( নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়,  মাধ্যমিক বিদ্যালয়,  উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়); 
৩.২। কলেজ ( উচ্চ মাধ্যমিক কলেজ,  স্নাতক পাস কলেজ);
৩.৩। সঙ্গীত কলেজ, শরীরচর্চা কলেজ,  চারুকলা কলেজ,  গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ,  বিকেএসপি  নৈশকালীন বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমুহ বিশেষ প্রতিষ্ঠান হিসেবে বিবেচিত হবে।  বাস্তবতার সাথে মিল রেখে প্রয়োজনীয়তার নিরিখে এরকম প্রতিষ্ঠানসমূহকে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ,  শিক্ষা মন্ত্রণালয় এমপিওভুক্তির আওতায় আনতে পারবে।
৪।  সংজ্ঞা:
৪.১ এমপিও প্রদানকারী কর্তৃপক্ষ:
এ নীতিমালার অধীরে এমপিও প্রদানকারী কর্তৃপক্ষ বলতে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ শিক্ষা মন্ত্রণালয় কে বুঝাবে।
৪.২।  প্রতিষ্ঠান:  প্রতিষ্ঠান বলতে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ একাডেমিক স্বীকৃতি প্রাপ্ত/ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কে বুঝাবে।
৪.৩   উদ্বৃত্তপদ:  এ নীতিমালার আওতায় জনবল কাঠামো বহির্ভূত  পদসংখ্যা কে বুঝাবে।
৪.৪  জনবল কাঠামো:  জনবল কাঠামো বলতে অনুচ্ছেদ ৬.১ (ক), ৬.১ (খ), ৬.১ (গ), ৬.১ (ঘ) এবং ৬.১ (ঙ)  নির্ধারিত জনসংখ্যা কে বুঝাবে।
৪.৫ এনটিআরসিএ:  এনটিআরসিএ বলতে ২০০৫  সালের ১  নং  আইন দ্বারা প্রতিষ্ঠিত বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ কে বুঝাবে।
৪.৬  পরিশিষ্ট:  এ নীতিমালার শেষাংশে পরিশিষ্ট (ক-ঙ)  হিসেবে সন্নিবেশিত তথ্য কে বুঝাবে নীতিমালার অংশ হিসেবে বিবেচিত হবে।
৪.৭  এমপিও:  মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ কর্তৃক নির্বাচিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক ও কর্মচারীদের প্রতিমাসের প্রদত্ত বেতন-ভাতাদি সরকারি অংশকে বুঝাবে।
৪.৮  সরকার:  সরকারি মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ,  শিক্ষা মন্ত্রণালয় কে বুঝাবে।
৪.৯  পরিচালনা কমিটি:  পরিচালনা কমিটি বলতে প্রযোজ্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটি/ গভর্নিং বডি/এডহক  কমিটিকে বুঝাবে।
৪.১০    মঞ্জুরকারী কর্তৃপক্ষ:  এমপিও মঞ্জুরকারী কর্তৃপক্ষ বলতে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ শিক্ষা মন্ত্রণালয় কে বুঝাবে।
৪.১১  প্রতিষ্ঠান প্রধান:  নিম্ন মাধ্যমিক,  মাধ্যমিক প্রধান শিক্ষক,  উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় এর ক্ষেত্রে প্রধান/ অধ্যক্ষ এবং কলেজের ক্ষেত্রে অধ্যক্ষ কে বুঝাবে।৪.১২  আপিল আর্বিট্রেশন কমিটি :  নিম্ন মাধ্যমিক,  মাধ্যমিক,  উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় উচ্চ মাধ্যমিক কলেজ এর ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের আপিল আর্বিট্রেশন কমিটি এবং স্নাতক পাস কলেজের ক্ষেত্রে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের আপিল কমিটিকে বুঝাবে।
৪.১৩  সিটি করপরেশন : স্থানীয় সরকার বিভাগ কর্তৃক ঘোষিত সিটি কর্পোরেশন এলাকা কে বুঝাবে।
৪.১৪  পৌর এলাকা:  স্থানীয় সরকার বিভাগ ঘোষিত পৌর এলাকা কে বুঝাবে।
৪.১৫  শহর এলাকায়:  শহর এলাকায় সিটি কর্পোরেশন ও জেলা সদরের পৌরসভা কে বুঝাবে।
৪.১৬ মফস্বল:  মফস্বল বলতে সিটি কর্পোরেশন ও জেলা সদরের পৌর এলাকা ব্যতীত অন্যান্য এলাকা কে বুঝাবে।
৪.১৭  ইনক্রিমেন্ট: জাতীয় বেতন  স্কেলের নির্ধারিত বার্ষিক বেতন বৃদ্ধির হার/ কে বুঝাবে।
৪.১৮ স্বীকৃতি:  মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ শিক্ষা মন্ত্রণালয় অনুমোদনক্রমে সংশ্লিষ্ট মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড কর্তৃক কোন প্রতিষ্ঠান অনুকূলে একাডেমি স্বীকৃতি কে বুঝাবে।
৪.১৯  অধিভুক্তি:  জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে  অধিভুক্তিকরণ বোঝাবে।
৪.২০  জিএফআর:  জিএফ আর বলতে জেনারেল ফিনান্সিয়াল রুলস কে বুঝাবে।
৪.২১ EFT: EFT  বলতে ইলেকট্রনিক ট্রান্সফার  এর মাধ্যমে শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন ভাতাদি প্রধান বুঝাবে।
৪.২২  বেতন স্কেল:  বেতন স্কেল বলতে জাতীয় বেতন স্কেল ২০১৫  এবং সে সময়ে সরকার কর্তৃক ঘোষিত জাতীয় বেতন স্কেল কে বুঝাবে।৪.২৩  অধিদপ্তর:  অধিদপ্তর বলছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর কে বুঝাবে।
বেতন ভাতাদি সরকারি অংশ প্রাপ্তির আবশ্যকীয় শর্তাবলী:  বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমূহের ( স্কুল ও কলেজ)  শিক্ষক ও কর্মচারীদের বেতন ভাতাদি সরকারি অংশ প্রাপ্তির জন্য প্রতিষ্ঠানসমূহকে ( স্কুল ও কলেজ)  নিম্নোক্ত শর্তাবলী পূরণ করতে হবে:
৫.১।  প্রাপ্যতা:  এ নীতিমালা অনুযায়ী   শর্তপূরণকারী  শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে বুঝাবে।
৫.২।  একাডেমিক স্বীকৃতি/ অধিভুক্তি:  প্রতিষ্ঠানকে ( স্কুল ও কলেজ)  অবশ্যই সংশ্লিষ্ট শিক্ষা বোর্ড/ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় বা উপযুক্ত কর্তৃপক্ষ করতে হালনাগাদ একাডেমিক স্বীকৃতি প্রাপ্ত/ অধিভুক্ত হতে হবে।
৫.৩  প্রতিষ্ঠান জমি:  এমপিও আবেদন করার পূর্বে  শিক্ষা  প্রতিষ্ঠান নিজস্ব জমি মালিকানা,  নামজারী ও হালনাগাদ ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধের রশিদ/ প্রমাণ থাকতে হবে।  তবে সংস্থা/  ট্রাস্ট  পরিচালিত প্রতিষ্ঠান ক্ষেত্রে জমির মালিকানা সংস্থার/ ট্রাস্টের নামে হলেও গ্রহণযোগ্য হবে এবং সেক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানের নামে সংস্থা/ ট্রাস্ট কর্তৃক জমির বরাদ্দ পত্র থাকতে হবে ভাড়া বাড়িতে পরিচালিত কোন  শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্ত করা হবে না।
৫.৪।  ট্রাস্ট/ সংস্থা পরিচালিত কোন প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির জন্য আবেদন করতে হলে প্রতিষ্ঠান প্রধান ও ম্যানেজিং কমিটি/ গভর্নিং বডি সভাপতির যৌথ স্বাক্ষরে আবেদন দাখিল করতে হবে।
৫.৫।  প্রতিষ্ঠান ( স্কুল ও কলেজ)  অবশ্যই অনুমোদিত জনবল কাঠামো অনুযায়ী শিক্ষক কর্মচারী নিয়োগ থাকা সাপেক্ষে এমপিওভুক্তির বিবেচনায় আসবে।  তবে সরকার বাস্তবতার নিরিখে জনবল কাঠামো পরিবর্তনের মাধ্যমে পদ হ্রাস/ বৃদ্ধি করতে পারে।
৫.৬। কাম্য শিক্ষার্থী:  এ নীতিমালার ধারা ২২ এ বর্ণিত শর্ত শিথিলযোগ্য প্রতিষ্ঠান/ এলাকা/ অনগ্রসর গোষ্ঠী ব্যতীত অন্যান্য প্রতিষ্ঠান ( স্কুল ও কলেজ)  ক্ষেত্রে অবশ্যই পরিশিষ্ট ‘খ’  অনুযায়ী প্রয়োজনীয় সংখ্যক শিক্ষার্থী থাকতে হবে।
৫.৭।  কাম্য  পরীক্ষার্থী ও পাশের হার:  প্রতিষ্ঠানকে ( স্কুল ও কলেজ) অবশ্যই পাবলিক পরীক্ষায় পরিশিষ্ট ‘গ’  মোতাবেক কাম্য শিক্ষার্থী থাকতে হবে ও ন্যূনতম পাসের হার অর্জন করতে হবে। 
৫.৮।  ম্যানেজিং কমিটি/ গভর্নিং বডি/এডহক  কমিটি:  প্রতিষ্ঠান ( স্কুল ও কলেজ)  অবশ্যই যথাযথ কর্তৃপক্ষ/ সংশ্লিষ্ট মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড/ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক অনুমোদিত ম্যানেজিং কমিটি/ গবর্নিং বডি/ এডহক কমিটি থাকতে হবে।
৫.৯।  সংশ্লিষ্ট  প্রতিষ্ঠানে  প্রযোজ্য ক্ষেত্রে NTRCA   নিবন্ধনধারী ও নিয়োগের জন্য সুপারিশ প্রাপ্ত শিক্ষক- প্রদর্শক  প্যাটার্ন ভক্ত পদে নিয়োগ কৃত থাকতে হবে/ নিয়োগ করতে হবে।
৫.১০।  কোন প্রতিষ্ঠান ( স্কুল ও কলেজ)  স্বীকৃতি/ অধিভুক্তির জন্য প্রয়োজনীয় শর্ত পূরণ প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত নিশ্চিত করবে না। সরকার আর্থিক সামর্থ্য অনুযায়ী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিও ভুক্ত করবে।

স্কুল ও কলেজ জনবল কাঠামো 2021 নবসৃষ্ট পদ

জনবল কাঠামো এমপিও নীতিমালা 2021 এ নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মাধ্যমিক বিদ্যালয় জন্য  স্কুল এন্ড কলেজ, উচ্চমাধ্যমিক কলেজের জন্য কিছু নবসৃষ্ট পদ বৃদ্ধি রয়েছে নিম্নে তা ছক আকারে দেখানো হলো।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের স্তরের নামএমপিও নীতিমালা 2018 মোট পদ সংখ্যাএমপিও নীতিমালা 2021মোট পদ সংখ্যাএমপিও নীতিমালা 2021-এ বৃদ্ধিপ্রাপ্ত  পদের সংখ্যা ও নাম
নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় (৬ষ্ঠ-৮ম)১৮১৯১টি পদ বৃদ্ধি হয়েছে
অফিস সহায়ক: মফস্বল এলাকার প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য।
( সিটি কর্পোরেশন, জেলাসদর এবং পৌরসভায় অবস্থিত প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠান প্রয়োজনে নিজস্ব অর্থায়নে এ পদে নিয়োগ দিতে পারবেন।)
মাধ্যমিক বিদ্যালয় (৬ষ্ঠ-১০ম)২২২৭৫টি পদ বৃদ্ধি হয়েছে:

ট্রেড ইন্সট্রাক্টর : ২টি (ভোকেশনাল ট্রেড কোর্স অনুমোদনপ্রাপ্ত এবং চালু থাকলে)
ট্রেড সমূহ: ১)  ফুড প্রসেসিং ২)  সিভিল কনস্ট্রাকশন ৩)  জেনারেল ইলেকট্রিক্যাল ওয়ার্কস ৪) জেনারেল ইলেকট্রনিক্স ওয়ার্কস ৫)  ড্রেস মেকিং ৬)  ইনফরমেশন এন্ড কমিউনিকেশন টেকনোলজি ৭)  জেনারেল মেকানিক্স ৮) রেফ্রিজারেশন এন্ড এয়ার কন্ডিশনিং ৯)  প্লাম্বিং এন্ড পাইপ ফিটিং ১০)  ওয়েল্ডিং এন্ড ফেব্রিকেশন ১১)  ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ও ১২)  বিউটিফিকেশন। 
উল্লিখিত  ট্রেড গুলো হতে  ট্রেড এ্যাসিসট্যান্ট: ২টি

অফিস সহায়ক: ১টি মফস্বল এলাকার প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য।( সিটি কর্পোরেশন, জেলাসদর এবং পৌরসভায় অবস্থিত প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠান প্রয়োজনে নিজস্ব অর্থায়নে এ পদে নিয়োগ দিতে পারবেন।)
উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় (৬ষ্ঠ-১২শ)২৯৩৪৫টি পদ বৃদ্ধি হয়েছে:
ট্রেড ইন্সট্রাক্টর : ২টি (ভোকেশনাল ট্রেড কোর্স অনুমোদনপ্রাপ্ত এবং চালু থাকলে)
ট্রেড সমূহ: ১)  ফুড প্রসেসিং ২)  সিভিল কনস্ট্রাকশন ৩)  জেনারেল ইলেকট্রিক্যাল ওয়ার্কস ৪) জেনারেল ইলেকট্রনিক্স ওয়ার্কস ৫)  ড্রেস মেকিং ৬)  ইনফরমেশন এন্ড কমিউনিকেশন টেকনোলজি ৭)  জেনারেল মেকানিক্স ৮) রেফ্রিজারেশন এন্ড এয়ার কন্ডিশনিং ৯)  প্লাম্বিং এন্ড পাইপ ফিটিং ১০)  ওয়েল্ডিং এন্ড ফেব্রিকেশন ১১)  ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ও ১২)  বিউটিফিকেশন।উল্লিখিত  ট্রেড গুলো হতে  ট্রেড এ্যাসিসট্যান্ট: ২টি

অফিস সহায়ক: ১টি মফস্বল এলাকার প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য।( সিটি কর্পোরেশন, জেলাসদর এবং পৌরসভায় অবস্থিত প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠান প্রয়োজনে নিজস্ব অর্থায়নে এ পদে নিয়োগ দিতে পারবেন।)
উচ্চ মাধ্যমিক কলেজ (১১শ-১২শ)১৭১৭কোন পদ বৃদ্ধি হয়নি।
স্নাতক পাস কলেজ (১১শ-১৫শ)কোন পদ বৃদ্ধি হয়নি।

উচ্চতর গ্রেড ও ইনক্রিমেন্ট:

১১.৭ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক ও কর্মচারীগণ উচ্চতর স্কেল বা পদোন্নতি পেলে তার মূল বেতন  বর্তমানে তাঁর আহরিত বেতনের চেয়ে কোনক্রমেই কম হবে না।  অর্থাৎ তার মূল বেতন নির্ধারিত হবে বেতন স্কেল 2015 অথবা সর্বশেষ জাতীয় বেতন স্কেলের সাথে মিলিয়ে প্রাপ্য উচ্চতর স্কেল/ পদোন্নতি স্কেলের যে ধাপে মিলবে সে ধাপে নির্ধারিত হবে।  ধাপ না মিললে পরবর্তী ধাপে নির্ধারিত হবে। যেমন: 

(ক) ১১তম  গ্রেডে কারো বর্তমান আহরিত মূল বেতন যদি ১৬,৭৮০/-  টাকা হয়,  তিনি ১০ম গ্রেডে  উচ্চতর স্কেল পেলে তার মূল বেতন ফিক্সেশন করে হবে ১ম গ্রেডে ১৬৮০০/-  ( জাতীয় বেতন স্কেল ২০১৫  অনুযায়ী)

(খ)  ৯ম গ্রেডে  কারো বর্তমান আহরিত মূল বেতন যদি ২৫, ৪৮০/-  টাকা হয়।  তিনি ৮ম গ্রেডে উচ্চতর স্কেল/ পদোন্নতি পেলে তার মূল বেতন ফিক্সেশন করে হবে ৮ম গ্রেডে ২৬,৬৩০/-  টাকা ( জাতীয় বেতন স্কেল ২০১৫  অনুযায়ী)

(গ) ১৬ তম গ্রেডে কারো বর্তমান আহরিত মূল বেতন যদি ১১,৩২০/-  টাকা,  তিনি ১৫তম গ্রেডে  উচ্চতর স্কেল পেলে ফিক্সেশন করে তার মূল বেতন ১৫ তম গ্রেডে  হবে ১১,৮১০/-  টাকা ( জাতীয় বেতন স্কেল ২০১৫  অনুযায়ী)

(ঘ)  কোন শিক্ষক/ কর্মচারী উচ্চতর স্কেল/ পদোন্নতি স্কিন পাওয়ার পর বর্তমানে উচ্চতর স্কেলের/ পদোন্নতি প্রাপ্ত স্কেলের প্রাথমিক  ধাপের বেশি হয় তবে নতুন প্রাপ্ত স্কেলের পরবর্তী ধাপে তার মূল বেতন নির্ধারিত হবে অর্থাৎ প্রাপ্ত স্কেলের ধাপে মিলতে হবে। 

(ঙ)  শিক্ষক-কর্মচারীদের বেতন/ বোনাসের নির্ধারিত অংশ/ উৎসব ভাতার নির্ধারিত অংশ/ বৈশাখী ভাতার নির্ধারিত অংশ সরকারের জাতীয় বেতন স্কেল 2015/ সরকারের সর্বশেষ জাতীয় বেতন স্কেল এর সাথে অথবা সরকারের নির্দেশনার সাথে মিল রেখে করতে হবে।

পদের নাম পরিবর্তন

এমপিও নীতিমালা 2018  হতে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ( স্কুল ও কলেজ) জনবল কাঠামো ও এমপিও নীতিমালা 2021- এ  কিছু পদের নাম পরিবর্তন করা হয়েছে নিম্নে তা প্রতিষ্ঠান স্তরভিত্তিক ছক  আকারে দেখানো হলো:

প্রতিষ্ঠানের স্তরনীতিমালা ২০১৮ অনুযায়ী পদের নামনীতিমালা ২০২১ অনুযায়ী পরিবর্তিত পদের নামমন্তব্য
নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় (৬ষ্ঠ-৮ম)সহকারী শিক্ষক (ধর্ম)সহকারী শিক্ষক ( ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা)প্রাপ্যতা সাপেক্ষে প্রতিটি ধর্মের জন্য
অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটরঅফিস সহকারী কাম হিসাব সহকারী
মাধ্যমিক বিদ্যালয় (৬ষ্ঠ-১০ম)সহকারী শিক্ষক (ধর্ম)সহকারী শিক্ষক ( ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা)প্রাপ্যতা সাপেক্ষে প্রতিটি ধর্মের জন্য
সহকারী গ্রন্থাগারিক কাম ক্যাটালগারসহকারী শিক্ষক (গ্রন্থাগার ও তথ্য বিজ্ঞান)এ নীতিমালা জারি পূর্বে যারা সহকারী গ্রন্থাগারিক কাম ক্যাটালগার হিসেবে কর্মরত আছেন তাদের পদবীঃ সহকারী শিক্ষক ( গ্রন্থাগার ও তথ্য বিজ্ঞান) হিসেবে পরিবর্তিত হবে।  তবে তাদের বেতন ভাতাদি সুযোগ-সুবিধা ও বেতন স্কেল পূর্বের মত বহাল থাকবে।
অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটরঅফিস সহকারী কাম হিসাব সহকারী
উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়  (৬ষ্ঠ-১২শ)সহকারী অধ্যাপকজ্যেষ্ঠ প্রভাষকএ নীতিমালা জারি পূর্বে যারা সহকারী অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত আছেন তাদের পদবী পূর্বের মত সহকারী অধ্যাপক হিসেবে বহাল থাকবে। তবে এ নীতিমালা জারির পর প্রভাষক গণ বিধি মোতাবেক পদোন্নতি পেয়ে জ্যেষ্ঠ প্রভাষক হবেন। উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় নতুন ভাবে আর সহকারী অধ্যাপক পদবী থাকবে না
সহকারী শিক্ষক (ধর্ম)সহকারী শিক্ষক ( ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা)প্রাপ্যতা সাপেক্ষে প্রতিটি ধর্মের জন্য
সহকারী গ্রন্থাগারিক কাম ক্যাটালগারসহকারী শিক্ষক (গ্রন্থাগার ও তথ্য বিজ্ঞান)এ নীতিমালা জারি পূর্বে যারা সহকারী গ্রন্থাগারিক কাম ক্যাটালগার হিসেবে কর্মরত আছেন তাদের পদবীঃ সহকারী শিক্ষক ( গ্রন্থাগার ও তথ্য বিজ্ঞান) হিসেবে পরিবর্তিত হবে।  তবে তাদের বেতন ভাতাদি সুযোগ-সুবিধা ও বেতন স্কেল পূর্বের মত বহাল থাকবে।
উচ্চ মাধ্যমিক কলেজ (১১শ-১২শ)সহকারী অধ্যাপকজ্যেষ্ঠ প্রভাষকএ নীতিমালা জারি পূর্বে যারা সহকারী অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত আছেন তাদের পদবী পূর্বের মত সহকারী অধ্যাপক হিসেবে বহাল থাকবে। তবে এ নীতিমালা জারির পর প্রভাষক গণ বিধি মোতাবেক পদোন্নতি পেয়ে জ্যেষ্ঠ প্রভাষক হবেন। উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় নতুন ভাবে আর সহকারী অধ্যাপক পদবী থাকবে না।
সহকারী গ্রন্থাগারিক কাম ক্যাটালগারসহকারী শিক্ষক (গ্রন্থাগার ও তথ্য বিজ্ঞান)এ নীতিমালা জারি পূর্বে যারা সহকারী গ্রন্থাগারিক কাম ক্যাটালগার হিসেবে কর্মরত আছেন তাদের পদবীঃ সহকারী শিক্ষক ( গ্রন্থাগার ও তথ্য বিজ্ঞান) হিসেবে পরিবর্তিত হবে।  তবে তাদের বেতন ভাতাদি সুযোগ-সুবিধা ও বেতন স্কেল পূর্বের মত বহাল থাকবে।
স্নাতক ( পাস) কলেজ (১২শ-১৫শগ্রন্থাগারিকগ্রন্থাগারিক প্রভাষকএ নীতিমালা জারি পূর্বে  স্নাতক (পাস) কলেজে যারা  গ্রন্থাগারিক হিসেবে কর্মরত আছেন তাদের  পদবি গ্রন্থাগার প্রভাষক হিসেবে পরিবর্তিত হবে। তবে তাদের বেতন ভাতাদি ও সুযোগ-সুবিধা এবং বেতন স্কেল পূর্বের মত বহাল থাকবে।
সহকারী গ্রন্থাগারিক কাম ক্যাটালগারসহকারী শিক্ষক (গ্রন্থাগার ও তথ্য বিজ্ঞান)এ নীতিমালা জারি পূর্বে যারা সহকারী গ্রন্থাগারিক কাম ক্যাটালগার হিসেবে কর্মরত আছেন তাদের পদবী সহকারী শিক্ষক ( গ্রন্থাগার ও তথ্য বিজ্ঞান) হিসেবে পরিবর্তিত হবে।  তবে তাদের বেতন ভাতাদি সুযোগ-সুবিধা ও বেতন স্কেল পূর্বের মত বহাল থাকবে।
স্কুল ও কলেজ জনবল কাঠামো 2021

স্কুল ও কলেজ জনবল কাঠামো 2021 সম্পূর্ণ পেতে ক্লিক করুন

আরও জানুন : NTRCA গণবিজ্ঞপ্তি 2021 আবেদনের নিয়মাবলী

আরও জানুন : সহকারী অধ্যাপক/জেষ্ঠ্য প্রভাষক নীতিমালা-2021

Leave a Comment

Scroll to Top